ডিজিটাল অডিও ফরম্যাট (পর্ব-১)

cassete.jpg

ডিজিটাল অডিও ফরম্যাটকে দুই ক্যাটাগরীতে ফেলা যায়ঃ
১.
Compressed Format
২. Non-Compressed Format
আবার Compressed Format এর দুইটা সাব-ক্যাটাগরী আছেঃ
১.
Lossy Compressed Formats
২. Lossless Compressed Formats

Lossy Compressed Formats:
নাম থেকেই বুঝতে পারছেন এই ফরম্যাটে মূল অডিও ফাইলের কিছু ইনফরমেশন বাদ দেওয়া হয় ফাইল সাইজ ছোট করার জন্য। সাধারনত অতি উচ্চ এবং অতি নিম্ন ফ্রিকোয়েনসিগুলোকে বাদ দেওয়া হয় যা গড়ে বেশীর ভাগ শ্রোতাই শুনতে পাননা। কারন এই ফ্রিকোয়েনসিগুলো শোনার জন্য হাই ফাই সাউন্ড সিষ্টেম দরকার। এছাড়া ব্যবহারকারী নিজেও ইচ্ছেমত ফাইল সাইজ কন্ট্রোল করতে পারেন। সাউন্ড কোয়ালিটি যত কমানো হবে ফাইল সাইজ তত ছোট হবে উলটোভাবে সাউন্ড কোয়ালিটি বাড়ালে ফাইল সাইজ ও বড় হবে। কিছু lossy formats নিয়ে নিচে আলোচনা করা হল।

MP3 (MP3): MPEG-1 Level 3 এর সংক্ষিপ্ত রুপ। বর্তমানে বহুল ব্যবহৃত অডিও ফরম্যাট। এই ফরম্যাটে কম্প্রেশন অনুপাতে সাউন্ড কোয়ালিটি বেশ ভালো। ব্যবহারের দিক দিয়ে অন্যান্য ফরম্যাটের চাইতে MP3 অনেক এগিয়ে আছে। বর্তমানে প্রচলিত প্রত্যেকটি ডিজিটাল মিউজিক প্লেয়ার এবং প্লেয়ার সফটওয়্যার MP3 ফরম্যাট সাপোর্ট করে।
Windows Media Audio (WMA): মাইক্রোসফট MP3 এর বিকল্প হিসেবে এই ফরম্যাট বের করে। সমান কোয়ালিটির একটা MP3 ফাইলের চাইতে WMA ফাইল ২৫% এর মত কম সাইজের ফাইল তৈরী করে। এই ফরম্যাট Digital Rights Management সাপোর্ট করে। বাজারে বেশ কিছু ডিজিটাল মিউজিক প্লেয়ার অছে যা WMA সাপোর্ট করে।
RealAudio Media (RA, RM, RMA): এটি রিয়েল নেটওয়ার্কের একটি প্রোপাইটরি ফরম্যাট। মূলত রিয়েলটাইম স্ট্রিমিং অডিওর জন্য এই ফরম্যাট ডেভেলপ করা হয়েছে।
mp3PRO (MP3): ২০০১ সালে এমপিথ্রির উন্নত সংস্করন হিসেবে এই ফরম্যাট বের হয়। তবে তেমন জনপ্রিয় হয়নি।
Advanced Audio Coding (AAC): এই ফরম্যাটকে MPEG-4 AAC ও বলা হয়। এটি এপলের আইটিউন এবং আইপডের প্রোপাইটরি ফরম্যাট। আনঅথরাইজড ব্যবহার বন্ধ করার জন্য এটি DSigital Rights Management সাপোর্ট করে। কিন্তু বেশীরভাগ নন-এপল প্লেয়ার এই ফরম্যাট সাপোর্ট করেনা।
Liquid Audio (LAT, LQT, LSL): ১৯৯০ সালের দিকে এমপিথ্রির প্রতিদ্বন্দ্বি হিসেবে এই ফরম্যাটের আবির্ভাব হয়। তবে এখন তেমন ব্যবহার হয়না।
QuickTime Audio (MOV): AAC ফরম্যাটের মতই MPEG-4 টেকনোলজি ব্যবহার করে।
OGG Vorbis (OGG): এটি ওপেনসোর্স ভিত্তিক এনকোডিং সিষ্টেম। MP3/WMA এর বিকল্প হিসেবে OGG Vorbis ভালো পছন্দ।

2 Responses to “ডিজিটাল অডিও ফরম্যাট (পর্ব-১)”

  1. অপু ব্লগ Says:

    […] ষ্টেশন ডিজিটাল অডিও ফরম্যাট (পর্ব-২) ডিজিটাল অডিও ফরম্যাট (পর্ব-১) কিছু কমন পোর্ট নাম্বার CAT-5 UTP ক্যাবল […]

  2. মাল্টিমিডিয়া « bdsite24 Says:

    […] ডিজিটাল অডিও ফরম্যাট (পর্ব-১) […]


Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: